গোসাইরহাট উপজেলায় কৃষককে পিটিয়ে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক: শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলায় বিল্লাল হোসেন বেপারী (৪০) নামে এক কৃষককে রড দিয়ে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার (৭ মে) রাতে গোসাইরহাট পৌরসভার বিনোটিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত বিল্লাল হোসেন বেপারী গোসাইরহাট পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের বিনোটিয়া গ্রামের মান্নান বেপারীর ছেলে।

গোসাইরহাট থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (৭ মে) সকালে সরকারের ১০ টাকা কেজি চালের কার্ড নিয়ে বিল্লাল হোসেন বেপারী ও তার প্রতিবেশী কাদির বেপারীর মধ্যে গোসাইরহাট পৌরসভার বিনোটিয়া এলাকায় বাগবিতন্ডা হয়। তখন স্থানীয় লোকজন তাদের বিষয়টি মীমাংসা করে দেয়।

রাত ৮টার দিকে কাদির বেপারী, তার ছেলে ফেরদৌস বেপারী, চাচাতো ভাই মো. শাজাহান বেপারী, ভাতিজা আনিছ বেপারী, আমিন উদ্দিন বেপারীসহ ৮/১০ জন মিলে বিনোটিয়া গ্রামের লিটন রাড়ীর স্যানিটারির দোকানের সামনে বিল্লাল হোসেন বেপারীকে রড দিয়ে পিটিয়ে ও কিল ঘুষি মেরে আহত করেন। গুরুতর আহত অবস্থায় চিকিৎসার জন্য তাকে গোসাইরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনার সময় তার ছোট ভাই হোসেন বেপারীকেও পিটিয়ে আহত করা হয়। এ ঘটনায় আটজনকে আসামি করে গোসাইরহাট থানায় হত্যা মামলা করেছেন নিহত বিল্লাল হোসেন বেপারীর ভাই হাসান বেপারী।

গোসাইরহাট পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. হুমায়ন সিকদার বলেন, কাদির বেপারী বলেন ১০ টাকা কেজির চালের কার্ড পাইনি, বিল্লাল বেপারী বলেন আপনি পেয়েছেন। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে তর্ক হয়। পরে কাদির বেপারীর লোকজন পিটিয়ে ও কিল ঘুষি মেরে বিল্লাল বেপারীকে হত্যা করেন। হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক বিচার হওয়া উচিত।

গোসাইরহাট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা সোহেব আলী বলেন, এ ঘটনায় নিহতের ভাই হাসান বাদী হয়ে আটজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেছেন। আসামিদেরকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

এসএইচ/ এমটি