যুক্তরাজ্যে পিপিই’র জন্য সতর্ক করে বাংলাদেশি ডাক্তার নিজেই মারা গেলেন

যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আব্দুল মাবুদ চৌধুরী (৫২) নামে এক ব্রিটিশ বাংলাদেশি চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। লন্ডনের রমর্ফোডের কুইন্স হাসপাতালে ১৫ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর গত ৮ এপ্রিল তার মৃত্যু হয়।

এর আগে, গত ১৮ মার্চ এক বার্তায় তিনি যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে সতর্ক করে বলেছিলেন, স্বাস্থ্যকর্মীদের জরুরি ভিত্তিতে আরও পারসোনাল প্রোটেকটিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই) প্রয়োজন।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম স্কাই নিউজের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

ডা. আব্দুল মাবুদ চৌধুরী পূর্ব লন্ডনের হোমেরটন হাসপাতালের ইউরোলজি বিভাগের কনসালটেন্ট হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

গত ১৮ মার্চ এক বার্তায় তিনি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসের প্রত্যেক স্বাস্থ্যকর্মী যাতে জরুরি ভিত্তিতে পিপিই পায় সেটি নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়েছিলেন।

তিনি প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে বলেছিলেন, স্বাস্থ্যকর্মীরা সরাসরি রোগীর সংস্পর্শে যায় এবং অন্যান্যদের মতো পরিবার ও সন্তান নিয়ে রোগমুক্ত পৃথিবীতে বেঁচে থাকার মানবিক অধিকার আমাদের আছে।

মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও দুই সন্তান রেখে গেছেন।

এক বিবৃতিতে ডা. আব্দুল মাবুদ চৌধুরীর মৃত্যুতে শোক জানিয়েছে ব্রিটিশ সংগঠন মুসলিম ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন।